উচ্চপ্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া খারিজ করল হাইকোর্ট

Spread the love

The High Court rejected the appointment of the upper primary




উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ প্রক্রিয়া খারিজ করল হাইকোর্টের বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের সিঙ্গেল বেঞ্চ। গোটা নিয়োগ প্রক্রিয়া পুনরায় শুরু করার নির্দেশ দিয়েছেন। দেখা গেছে নিয়োগ-প্রক্রিয়ার যে তালিকা তৈরি হয়েছিল তাতে যোগ্য প্রার্থীদের নাম ছিল না, বেশকিছু অযোগ্য প্রার্থীর নাম থাকায় এবং পদ্ধতিগত বেনিয়ম থাকার কারণে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া খারিজ করল কলকাতা হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের বিচারপতি নির্দেশ দিয়েছেন নতুন করে শুরু করতে হবে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া। আগামী ৪ ঠা জানুয়ারি থেকে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। ১০ ই মে এর মধ্যে ইন্টারভিউ নিতে হবে ৩১শে জুলাইয়ে মধ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। সঠিক নিয়ম এর মাধ্যমে বঞ্চিত যোগ্য ব্যক্তিদের নিয়োগের ব্যবস্থা করতে হবে।

The High Court rejected the appointment of the upper primary

২০১৫ সালের এই উচ্চ প্রাথমিকের পরীক্ষা হয়েছিল ও তার ফলাফল বেরিয়েছিল ২০১৬ সালে। প্রায় ৫ লক্ষ পরীক্ষার্থীর মধ্যে প্রায় ১ লক্ষ ৩০ হাজার পার্থী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছিল।নিয়ম বলা ছিল প্রশিক্ষণ প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে, কিন্তু ভেরিফিকেশনে বেশকিছু প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত দের বাদ দিয়ে অপ্রশিক্ষিন প্রাপ্তদের ডাকা হয়েছে। এই বেনিয়ম দেখে কয়েক হাজার চাকুরিপ্রার্থী হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন।দীর্ঘ শুনানির পর হাই কোর্টে নিয়োগ খারিজ করেন। চাকরি প্রার্থীদের জয়জয়কার হল এবং রাজ্য সরকার বড় ধাক্কা খেলো হাইকোর্টে।





আইনজীবী ফিরদৌস সামিম জানান, এই রায়ে এটা প্রমাণিত হলো য়ারা নতুন নিযুক্ত হবেন তারা স্বচ্ছতার মাধ্যমে নিয়োগ হবেন।মামলার শুনানিতে বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য জানিয়েছেন উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ গুরুত্বপূর্ণ।শিক্ষক সংখ্যা অত্যন্ত কম কিন্তু যে পদ্ধতিতে নিয়োগ চলছিল সেই অনুযায়ী নিয়োগ প্রক্রিয়া চলতে পারে না। ফলে আগের প্রক্রিয়া বাতিল করে সবাইকে সুযোগ দিয়ে নতুন করে নিয়োগের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সরকার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে শিক্ষকের ঘাটতি আছে।তাই হাইকোর্ট জুলাই মাসের মধ্যে তাড়াতাড়ি এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে নির্দেশ দিয়েছেন।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *