ধর্মঘট নিয়ে বৈঠক পরিবহন দপ্তরে

Spread the love

ধর্মঘট নিয়ে বৈঠক পরিবহন দপ্তরে

আগামীকাল মঙ্গলবার রাজ্যে একটি বিশেষ বৈঠক ডাকলো পরিবহন দপ্তর। আগামী ২৬ শে নভেম্বর বামেদের একটি ধর্মঘটের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। দেশে জিনিসপত্রের মূল্য বৃদ্ধি আলু এবং পেঁয়াজ এর মাত্রা অতিরিক্ত মূল্যে দেশের সাধারণ মানুষ অসহায়। এই নিয়ে বামেরা একটি সাধারণ ধর্মঘটের আহ্বান করেছে। তাই রাজ্য সরকার এই বন্ধে কিভাবে রাজ্যকে সচল রাখা যায় তার জন্য এই আলোচনা।

প্রতিবারেই ধর্মঘটে সরকারি কর্মচারীদের জন্য বিশেষ নির্দেশিকা থাকতো। যেখানে বন্ধের আগের দিন এবং বন্ধের পরের দিন সহ মোট তিন দিন রাজ্যে অফিস এবং স্কুল কলেজ বাধ্যতামূলকভাবে খোলা রাখতে হত। কোনো সরকারি কর্মচারী সাধারণ ছুটি ওই দিনগুলোতে নেওয়া যেত না। যদি কেউ ছুটি নেয় তাদের ওই দিনের বেতন কাটা হত অর্থাৎ ওই চাকরিজীবীর তার সার্ভিস লাইফ থেকে একদিন কমে যেতো।যারা আগে থেকে ছুটির অনুমোদন দিয়ে রাখত তাদেরই ছুটি মঞ্জুর করা হতো। ধর্মঘটের ওইসব দিনগুলিতে সমস্ত বেসরকারি বাসের বাস চালাচল করতে বিশেষ নির্দেশ দেয়া হতো।এছাড়াও সরকারি বাস এদের সংখ্যা অন্যান্য দিনের তুলনায় দ্বিগুণ বাস চালানো হতো। যদিও করোণা আবহের জন্য দীর্ঘদিন স্কুল-কলেজ বন্ধ এবং সরকারী অফিস গুলিতেও প্রায় ৭০ শতাংশ উপস্থিতি রেখে কাজ চালানো হচ্ছে। এখন দেখার বিষয় হল রাজ্য সরকার এই পরিস্থিতিতে আগের নিয়মকানুন বহাল রাখেন কিনা অথবা নতুন কিছু নিয়মে বাধ্যবাধকতা তৈরি করেন।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *