গ্লোবাল টিচার অ্যাওয়ার্ডে প্রথম এক ভারতীয়

Spread the love

গ্লোবাল টিচার অ্যাওয়ার্ডে প্রথম এক ভারতীয়

এই প্রথম ভারতীয় হিসাবে গ্লোবাল টিচার অ্যাওয়ার্ডে সম্মান পেলেন মহারাষ্ট্রের সোলাপুরের শিক্ষক রঞ্জিতসিন দিসালে। এই সম্মান ভারতীয়দের গর্ব। মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিং কেশিয়াড়ি অভিনন্দন জানিয়েছেন রঞ্জিতসিন দিসালেকে । তিনি বলেন ” রঞ্জিতসিন দিসালেকে আমার আন্তরিক শুভেচ্ছা অভিনন্দন রইল, লন্ডনের বারকলে ফাউন্ডেশনের গ্লোবাল টিচার আওয়ার্ড পাবার জন্য। দিসালে নারী শিক্ষা এবং শিক্ষার QR CODE এর ব্যবহার নিয়ে অবিস্মরনীয় কাজ করেছেন। তার এই সৃষ্টিশীল কাজের মধ্য দিয়ে প্রত্যন্ত এলাকার ছাত্র-ছাত্রীদের জ্ঞানের আলো দেখিয়ে এই পুরস্কার পেয়েছেন”।

গ্লোবাল টিচার অ্যাওয়ার্ডে প্রথম এক ভারতীয়

মহারাষ্ট্রের সরকার ও রঞ্জিতসিনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তিনি মহারাষ্ট্রের সোলাপুর জেলার পড়িতেওয়ারি জে পি স্কুলের শিক্ষক। তিনি পুরস্কার হিসাবে ১ মিলিয়ন ডলার পেয়েছেন যা ভারতীয় মুদ্রায় ৭ কোটি টাকা। ইনি প্রথম ব্যাক্তি ভারতীয় হিসাবে গ্লোবাল টিচার অ্যাওয়ার্ডে প্রথম হলেন।

বিশ্বের ১৪০ টি গুরুত্বপূর্ণ দেশের প্রায় ১২ হাজার শিক্ষক শিক্ষিকা অংশ নিয়েছিলেন এই প্রতিযোগিতায়। অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ১০ টি দেশের ১০ জন ফাইনালে উঠেছিল, বিজয় প্রাপ্তি হলো ভারতীয় শিক্ষক রঞ্জিতসিন দিসালে

তিনি সিদ্ধান্ত নেন তার পুরস্কার এর অর্ধেক টাকা বাকি ফাইনালে ওঠা ৯ জনের মধ্যে ভাগ করে দেবেন। যাতে করে তারাও তাদের দেশে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এই টাকা খরচ করতে পারেন।

গ্লোবাল টিচার অ্যাওয়ার্ডে প্রথম এক ভারতীয়

তিনি বলেন ” শিক্ষক ই হলো আসল পরিবর্তনকারী এবং মানুষ গড়ার কারিগর, যে তাঁর ছাত্র-ছাত্রীদের জীবনকে পরিবর্তন করে চক আর চ্যালেঞ্জ এর মিশ্রণের মধ্য দিয়ে । পুরস্কারের অর্থ ফাইনালিস্টদের মধ্যে ভাগ করে দিতে পেরে আমি খুবই খুশি এবং গর্বিত। আমি জানি আমরা একসঙ্গে পৃথিবী কে পরিবর্তন আনতে সক্ষম । কারণ ভাগ করে নিলে তবেইতো সমৃদ্ধ হবো আমরা।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *